কক্সবাজার শহরের আমারী রিসোর্টের একটি কক্ষ থেকে ফারজানা আক্তার (২৩) নামে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্বামী পরিচয়ে তার সঙ্গে রিসোর্টে ওঠা সাগর নামে এক যুবক পলাতক রয়েছেন।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউদ্দিন।

তিনি জানান, গত তিনদিন আগে সাগর ও ফারজানা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে আমারী রিসোর্টে ওঠেন। মঙ্গলবার সকালে সাগর বা ফারজানা কেউই বের হচ্ছিলেন না। তখন সন্দেহ হলে রিসোর্টের লোকজন দরজা ভেঙে ফারজানার মরদেহ দেখতে পায়। পরে তারা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, রিসোর্টে দেওয়া তথ্যে তাদের বাড়ি কুমিল্লায় বলে উল্লেখ আছে। পুলিশ এই তথ্যের সত্যতা এখনো পায়নি। পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে নিহতের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন মেলেনি।

আরও খবর