করোনাভাইরাসের ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট মোকাবিলায় ফাইজার এবং মডার্নার ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কম বলে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এসেছে। ওই গবেষণা থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে, করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে এই দুই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা ৯১ শতাংশ থেকে কমে ৬৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) এই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।

এর আগে ২০২০ সালের ১৪ ডিসেম্বর থেকে ২০২১ সালের ১০ এপ্রিল পর্যন্ত এই দুই ভ্যাকসিন ৯১ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর বলে ধরে নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সর্বশেষ ১৪ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া নতুন গবেষণায় দেখা গেছে, অতি সংক্রামক ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ার পর ফাইজার ও মডার্নার টিকার কার্যকারিতা ৬৬ শতাংশে নেমে এসেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে স্বাস্থ্যকর্মীসহ ফ্রন্টলাইনে সেবাদানকারী অন্যদের জন্য ফাইজার ও মডার্নার ভ্যাকসিন অনুমোদিত ছিল। ফলে প্রায়োগিক ক্ষেত্রে এগুলোর কার্যকারিতা পরীক্ষার উদ্যোগ নেয় যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি)। এর অংশ হিসেবে দেশজুড়ে ছয়টি রাজ্যের বিপুল সংখ্যক মানুষের ওপর এই পরীক্ষা চালানো হয়।

পরীক্ষায় কোভিডের উপসর্গ দেখা দিলে অথবা উপসর্গবিহীন সংক্রমণের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন কতটা কাজ করে সেটি নির্ধারণের ওপর জোর দেওয়া হয়। সেখানেই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে ফাইজার-মডার্নার ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কমে যাওয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। তবে গবেষকরা বলছেন, সংক্রমণ রোধে এখনও লোকজনের ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত। কেননা এটি সংক্রমণের পর দুই-তৃতীয়াংশ পর্যন্ত ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে।

আরও খবর