চট্টগ্রামে দৈনিক শনাক্তের রেকর্ড দুদিনও টিকল না। দুদিন আগে ১ হাজার ৩১০ শনাক্ত ও ১৮ মৃত্যু নিয়ে নতুন রেকর্ড গড়েছিল চট্টগ্রাম। এরপর টানা দুদিন ১৭ জন করে মৃত্যু হলো। তবে শনাক্তে গড়েছে আবার রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুনভাবে করোনা শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩১৫ জন। রেকর্ড শনাক্তের দিনেই নতুন করে মারা যাওয়া ১৭ জনের মধ্যে ৮ জন নগরের আর ৯ জন বিভিন্ন উপজেলার।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট করোনারোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৯ হাজার ৭৫১ জনে। যাদের মধ্যে ৫৯ হাজার ৮২২ জন নগরের বাকি ১৯ হাজার ৯২৯ জন বিভিন্ন উপজেলার। আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে করোনা কেড়ে নিয়েছে ৯৪৯ জনের প্রাণ। যাদের মধ্যে ৫৬৯ জন নগরের এবং ৩৮০ জন বিভিন্ন উপজেলার।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের রিপোর্টে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, নগরীর নয়টি ল্যাব ও এন্টিজেন টেস্টে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ৫১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নতুন করে ১ হাজার ৩১৫ জন করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। যাদের মধ্যে ৮৫৮ জন নগরের এবং ৪৫৭ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। 

ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৪২ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ৮৯ ও উপজেলার ৩১ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে। ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস ল্যাবে (বিআইটিআইডি) ৬৯৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ১১২ ও উপজেলার ৮৭ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৫০ জনের শরীরে করোনার জীবাণু পাওয়া যায়। যাদের ১২৯ জন নগরের এবং ২১ জন বিভিন্ন উপজেলার। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ৬৫ জন ও উপজেলার ৩৯ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়। চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আরটিআরএল টেস্টে ২৩টি পরীক্ষায় ১২ জনের করোনা পজিটিভ আসে। এদের মধ্যে ১০ জন নগরের এবং ২ জন উপজেলার।

অন্যদিকে ১ হাজার ৬ জনের এন্টিজেন টেস্টে মহানগরের ১২১ জন ও উপজেলার ২৩২ জন মিলিয়ে মোট ৩৫৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

এদিকে বেসরকারি ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির মধ্যে ইমপেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ২১৮টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ১০০ ও উপজেলার ৪ জনের শরীরে করোনা চিহ্নিত হয়েছে। বেসরকারি শেভরন ল্যাবে ৩৫৩টি নমুনার মধ্যে উপজেলার ৩৩টিসহ ১১৩টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ আসে। এছাড়া বেসরকারি মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ৭০টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৩৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। ইপিক হেলথ কেয়ারে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩১টি নমুনা পরীক্ষা করে ১২৪ জনের দেহে ভাইরাসটির উপস্থিতি পাওয়া যায়। যাদের ১১৮ জন নগরের, ৬ জন উপজেলার। এদিন, আগ্রাবাদের মা ও শিশু হাসপাতালে এদিন কোন নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ২৭টি নমুনার মধ্যে উপজেলার ২টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ এসেছে।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের উপজেলায় করোনা শনাক্তদের ফটিকছড়িতে সর্বাধিক ৭৮ জন করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া রাউজানে ৬৯ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ৪২ জন, আনোয়ারায় ৪১ জন, লোহাগাড়ায় ৩৭ জন, হাটহাজারীতে ৩৫ জন, পটিয়ায় ৩৩ জন, বোয়ালখালীতে ৩২ জন, সাতকানিয়ায় ২৭ জন, বাঁশখালীতে ২৫ জন, সীতাকুণ্ডে ১৭ জন, সন্দ্বীপ ও মিরসরাইয়ে ৭ জন করে এবং চন্দনাইশে ১ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম বার্তা/শামীম

আরও খবর