আস্ত একটি কাঠবিড়ালী খেয়ে ফেঁসে গেলো গ্রিনপিট ভাইপার প্রজাতির সাপ। পরে বমি করে কাঠবিড়ালী পেট থেকে বের করে দিলেও নিজের চির চেনা স্থানে ফিরতে পারেনি। সাপটিকে উদ্ধারের পর সংরক্ষণ করে রেখেছে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন।

জানা গেছে, সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গলের ভাড়াউড়া চা বাগানের সহকারী ব্যবস্থাপকের বাংলোর ফুল বাগানে সাপটিকে দেখা যায়। আতঙ্কিত মালি তখন বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে মুঠোফোনে যোগাযোগ করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব স্বপন।

ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব স্বপন গণমাধ্যমকে জানান, বাংলাদেশের দু-চার ধরনের বিষধর সাপের মধ্যে অন্যতম গ্রিনপিট ভাইপার। এই সাপ মানুষের মুখে মাথায় এবং গায়ে দংশন করে।

সবুজ বোড়া বা গ্রিন ভাইপারের মাথার অংশ মোটা বলে এটাকে স্থানীয়ভাবে গাল টাউয়া সাপও বলে। এই জাতের মোট ছয়টি প্রজাতি বাংলাদেশে দেখা যায়। এই সাপ সাধারণত সুন্দরবন এবং পাহাড়ি এলাকার জঙ্গলে দেখা যায়। সবুজের মধ্যে মিশে থাকে তাই মাঝে মাঝে চা বাগান এলাকায় দেখা যায়।

আরও খবর