পর পর দুদিন এক জন করে মারা যাওয়ার পর চট্টগ্রামে করোনায় আবারও মৃত্যুহীন দিন গেল। তবে থেমে নেই করোনা শনাক্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের মিছিলে যুক্ত হলেন আরও ৬০ জন। এদের মধ্যে ৪৩ জন নগরের এবং ১৭ জন উপজেলার।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ার ১৮ হাজার ২৪৪ জনে। এদের মধ্যে নগরের ১৩ হাজার ৪৩ জন এবং উপজেলার পাঁচ হাজার ২০১ জন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ২৮৪ জন, যাদের ১৯৬ জন নগরের এবং ৮৮ জন উপজেলার। অন্যদিকে, ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চট্টগ্রামে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ১৪ হাজার ৩৬১ জন।

শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘন্টায় ৮৯১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ৬০ জন, এর মধ্যে ৪৩ জন নগরের ও ১৭ জন উপজেলার বাসিন্দা। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনায় কেউ মারা যাননি।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের প্রধান করোনা পরীক্ষাগার ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-তে বিদেশগামীদের বাধ্যতামূলক করানো টেস্টসহ দিনের সর্বাধিক ৩৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করোনা করা হয়। তাতে করোনা শনাক্ত হয় ১০ জনের দেহে। এদের সবাই নগরের।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১২০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় ১৫৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে দিনের সর্বোচ্চ ১৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের জীবাণু পাওয়া যায়। এদের মধ্যে ১৫ জনই নগরের এবং বাকি ১ জন উপজেলার।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় ১০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে চমেকের সমান ১৬ জনের দেহে করোনার উপস্থিতি পেয়েছে। যাদের মধ্যে নগরের ৪ জন এবং উপজেলার ১২ জন।

বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নগরের ৯ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

চট্টগ্রামের আরেকটি বেসরকারি করোনা পরীক্ষাগার শেভরণ ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় ৩০ জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এদের মধ্যে ৩ জন নগরের এবং ১ জন উপজেলার।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় উপজেলার ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়।

উপজেলা পর্যায়ে নতুন শনাক্ত ১৭ জনের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য সিভিল সার্জনের দেয়া রিপোর্টে ছিল না।

এমএহক

আরও খবর