চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ফরহাদ হোসেন রুবেল নামে হত্যা ও অস্ত্র মামলার এক আসামি নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার শফিকুল ইসলাম খান কোতোয়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

শনিবার (৬ মার্চ) সকালে নিয়মিত বন্দি গণনাকালে তার খোঁজ মিলেনি।

থানায় জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নেজাম উদ্দিন বলেন, ফরহাদ হোসেন রুবেল নামে এক হাজতির খোঁজ না পেয়ে সিনিয়র জেল সুপার শফিকুল ইসলাম খান বাদী হয়ে কোতোয়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

রুবেল চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি সদরঘাট থানা এলাকায় কালাম নামে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাতে খুন করার অভিযোগে ডবলমুরিং এলাকা থেকে পুলিশের হাতে আটক হয়। কালাম হত্যাকাণ্ডে তার মা বাদি হয়ে রুবেলকে একমাত্র আসামি করে সদরঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন। আটকের পর রুবেল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কালাম হত্যা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে নগরীর সদরঘাট থানায় ২০১৮ সালে দুটি ও ডবলমুরিং থানায় ২০১৯ সালের একটি অস্ত্র মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারা অভ্যান্তরে রুপম কান্তি নাথ নামের এক হাজতির ওপর নির্যাতনের অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার তার পরিবার আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছেন। রুপম কান্তি নাথ কারা কর্তৃপক্ষের হেফাজতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। মামলায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের জেল সুপার, জেলার, জেলখানায় কর্তব্যরত সহকারী সার্জন ও সাতকানিয়ার মৌলভীর দোকান এলাকার রতন ভট্টাচার্য ও বেশ কয়েকজন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

এর আগে ২৯ মে ২০১৯ চট্টগ্রাম নগর পুলিশের তালিকাভূক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী ও ১৭ মামলার আসামি অমিত মুহুরী আরে কয়েদির হাতে কারাগারেই খুন হন। ১৯৯৮ সালে আলম নামে আরেক শীর্ষ সন্ত্রাসীকে গলায় ব্লেড চালিয়ে খুন করেছিলেন আরেক বন্দি। ভারতীয় নাগরিক জিবরান তায়েবী হত্যা মামলার আসামি ওসমানকে ২০০০ সালে ছুরিকাঘাতে খুন করেন অপর এক বন্দি।

আরও খবর