নিজস্ব প্রতিবেদক:

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালনে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সহযোগিতার জন্য সাধুবাদ জানিয়েছেন বিদায়ী প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন। সংবর্ধনার জাবাবে সুজন বলেন, আমি প্রশাসকের দায়িত্বে না থাকলেও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আমার দুয়ার সব সময় খোলা থাকবে।

শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে আন্দরকিল্লাস্থ পুরোনো নগর ভবনের কে.বি আবদুস সাত্তার মিলনায়তনে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে তাকে বিদায়ী সংবর্ধনায় দেওয়া হয়।

সংবর্ধনার জবাবে সুজন বলেন, এই শহরে আমার জম্ম, এই শহরে বেড়ে ওঠা, এই শহরেই আমার মৃত্যু হবে। ছাত্র জীবনে রাজনীতির হাতেখড়ি নিয়ে রাজপথকে আমার ঠিকানা বানিয়েছি। এখান থেকে চট্টগ্রাম নগরকে নিয়ে আমার স্বপ্ন দেখা। আমি কর্মে ছিলাম, আছি এবং থাকবো। 

তিনি বলেন, ১৮০ দিনের অভিজ্ঞতায় আমি অনুধাবন করেছি, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে অনেক মেধাবী কর্মকর্তা -কর্মচারী আছেন। তাদেরকে ঠিকমত ফিডব্যাক দিলে অনেক সফলতার দুয়ার তারাই খুলে দিতে পারেন এবং ইতোমধ্যে দিয়েছেনও।

সভাপতির বক্তব্যে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক বলেন, খুব কম সময়ে বিদায়ী প্রশাসক মহোদয় এমন কিছু কাজ করেছেন যাতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন কর্ম ও প্রাণের সঞ্জীবনী শক্তি পেয়েছে। এই শক্তিকে আমরা ধারণ করতে চাই।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল সোহেল আহমেদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, কুলগাঁও কলেজের অধ্যক্ষ আমিনুল হক খান, কাট্টলী স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেমসহ আরো অনেকে।

প্রসঙ্গত, ৫ আগস্ট সুজনকে চসিকের প্রশাসক নিয়োগ করে সরকার। ২৭ জানুয়ারি চসিকের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. রেজাউল করিম চৌধুরী মেয়র নির্বাচিত হন। আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি রেজাউল করিম শপথ গ্রহণ করবেন।

আরও খবর