চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু ও সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর স্বাক্ষরিত ১৩টি কমিটি ঘোষণারপর পাল্টা কমিটি ঘোষণা করে দল থেকে বহিষ্কার হলেন দুই ছাত্রলীগ নেতা। বহিষ্কৃত এই দুই ছাত্রনেতা হলেন মিথুন মল্লিক এবং ওয়াহেদ রাসেল। দুই জনই নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। মিথুন নগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি, রাসেল যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাদের বহিষ্কারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানানো হয়।

এর আগে গত ১০ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের অধীন সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ এবং চকবাজার, পাঁচলাইশ, হালিশহর ও বায়েজিদ থানাসহ ১৩টি ইউনিটের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

কমিটি ঘোষণার পর মহসিন কলেজ ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা ইমু ও জাকারিয়া দস্তগীরের ছবিতে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করে। সড়কে টায়ার জালিয়ে সড়ক অবরোধ করে। কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়কের দায়িত্ব পাওয়া কাজী নাঈমকে কলেজে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। মিথুন-রাসেলকে যেদিন বহিষ্কার করা হয় সেদিন পর্যন্ত নাঈম কলেজ ক্যাম্পাসে যেতে পারেনি।

১৩টি ইউনিটে কমিটি ঘোষণা করার দুই দিন পর মিথুন মল্লিক ও ওয়াহেদ রাসেল পাল্টা কমিটি ঘোষণা করে। এরই প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ তাদেরকে বহিষ্কার করলো। তবে তাদেরকে কারণ দর্শানো বা আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়নি বলে জানা গেছে। বহিষ্কার কার্যকর করার ক্ষেত্রে যা ছাত্রলীগের গঠণতন্ত্র পরিপন্থি বলেও কেউ কেউ মন্তব্য করছেন।

আরও খবর