নিজস্ব প্রতিবেদক:

চট্টগ্রাম ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) একেএম ফজলুল্লাহর বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পেয়েও এতদিন নীরব ছিল দুর্নীতি দমন কমিশন। এবার তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে অভিযোগের বিষয়ে দুদক কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা জানাতে বলা হয়েছে।

গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর হাসান আলী নামে এক ব্যক্তি চট্টগ্রাম ওয়াসার এমডি ফজলুল্লাহর বিরুদ্ধে দুর্নীতি-অনিয়মের অভিযোগ এনে দুদকের চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক বরাবরে অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের কোন কূল কিনারা না দেখে তিনি ২০ সেপ্টেম্বর উচ্চ আদালতে রিট করেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. ইকরাম উদ্দিন খান চৌধুরী। দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মো. নওশের আলী মোল্লা এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন।

আদালতের আদেশ জানিয়ে ইতোমধ্যে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে একটি চিঠি পাঠানোর বিষয়টি দুদকের আইনজীবী মো. নওশের আলী মোল্লা গণমাধ্যকে নিশ্চিত করেন।

আরও খবর