চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে হত্যা মামলার আসামি মো. ফরহাদ হোসেন রুবেল নিখোঁজ রহস্যের অবসান ঘটলো। তাকে কোতোয়ালী থানা পুলিশ নরসিংদী জেলার বায়পুর উপজেলার বাল্লাকান্দি চর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুরে তাকে নরসিংদী থেকে গ্রেপ্তার করে চট্টগ্রাম এনে সন্ধ্যা ৬টায় পুলিশ সংবাদ সম্মেলন করে।

সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (দক্ষিণ) পলাশ কান্তি নাথ বলেন, রুবেল মৃত্যুদণ্ডের ভয়ে মৃত্যুঝুঁকি নিয়ে কারাগারের দেয়াল টপকে ছিল। কারাগার থেকে পালিয়ে সে চট্টগ্রাম রেল স্টেশন গিয়ে ট্রেন যোগে নরসিংদী তার ফুফুর বাড়িতে আত্মগোপন করে। আমরা তাকে সেখানে থেকে আটক করি।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন জানান, রুবেলকে গ্রেপ্তারের পর তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সে সুস্থ্য হলে তাকে রিমান্ডে আনার আবেদন করা হবে।

উল্লেখ, রুবেল কারাগার থেকে নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় জেলার রফিকুল ইসলাম ও ডেপুটি জেলার আবু সাদ্দাতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া কারারক্ষী নাজিম উদ্দিন ও সহকারী ইউনুস মিয়াকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। রুবেল নিখোঁজের ঘটনায় কারা অধিদপ্তর ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন।

রুবেল চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি সদরঘাট থানা এলাকায় কালাম নামে এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাতে খুন করার অভিযোগে ডবলমুরিং এলাকা থেকে ৮ ফেব্রুয়ারি পুলিশের হাতে আটক হয়। কালাম হত্যাকাণ্ডে তার মা বাদি হয়ে রুবেলকে একমাত্র আসামি করে সদরঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন। আটকের পর রুবেল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কালাম হত্যা ছাড়াও তার বিরুদ্ধে নগরীর সদরঘাট থানায় ২০১৮ সালে দুটি ও ডবলমুরিং থানায় ২০১৯ সালের একটি অস্ত্র মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

আরও খবর