জিম্বাবুয়ে সফরে এক মাসের বেশি সময় জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকতে হয়েছে বাংলাদেশ দলকে। জিম্বাবুয়ে সফর থেকে এসেও পরিবারের মুখ দেখতে পারেননি ক্রিকেটাররা। অস্ট্রেলিয়া সিরিজের জন্য আবারও সেই জৈব সুরক্ষা বলয়ে প্রবেশ করেত হয়েছে। করোনাকালে এই জৈব সুরক্ষা বলয় ক্রীড়াঙ্গনের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলা চলে। তবে এটি যে কতটা কঠিন সেটা খেলোয়াড়রাই ভালো জানেন।

দুই সিরিজ মিলে টানা ৪১ দিনের জৈব সুরক্ষা বলয় থেকে অবশেষে মুক্তি মিলছে টাইগারদের। আগামী ৯ আগস্ট অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষে দুই সপ্তাহ ছুটি পাবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

‘এ সিরিজের পর ক্রিকেটাররা কিছুদিন ছুটি পাবে। এটা খুবই দরকার। টানা জৈব সুরক্ষা বলয়ে আছে সবাই। এটা খুব কঠিন, যারা সময়টা পার করছে তারাই জানে। আমার মনে হয় মানসিকভাবে সতেজ হবার জন্যও ওদের ছুটিটা দরকার। ছুটি শেষে নিউজিল্যান্ড সিরিজের প্রস্তুতি শুরু হবে।’

আগামী ২৪ আগস্ট ঢাকায় পা রাখবে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। ২৪ আগস্ট ঢাকায় আসবে নিউজিল্যান্ড দল। একই দিনে সুরক্ষা বলয়ে আবারও ঢুকবে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

এদিন থেকে শুরু হবে ৩ দিনের কোয়ারেন্টিন। ২৯ আগস্ট বিকেএসপিতে হবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ। এরপর পাঁচ ম্যাচের টি-২০ সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে ১ সেপ্টেম্বর থেকে। বাকি ম্যাচগুলো ৩, ৫, ৮ ও ১০ সেপ্টেম্বর। সিরিজের সবগুলো ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে মিরপুর শের ই বাংলা স্টেডিয়ামে।

আরও খবর