বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এবং তাঁরই হাত ধরে বাংলাদেশ চা শিল্পে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। তিনি ছিলেন চা শিল্পের জন্য অগ্রদূত। বঙ্গবন্ধু প্রথম বাঙালি যিনি চা বোর্ডের চেয়ারম্যানের চেয়ারে বসেছিলেন। বঙ্গবন্ধু চা বোর্ডে যোগদানের দিনটিকে আমরা চা দিবস হিসেবে ঘোষণা করেছি।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি এলাকায় অবস্থিত বাংলাদেশ চা বোর্ডের কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি গ্যালারি ও বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, রমজান মাসের চাহিদার যোগান দিতে ব্যবসায়ী ও টিসিবির কাছে ভোজ্যতেল, চিনি, গুড়, খেজুর, পেঁয়াজসহ সব ধরনের পণ্যের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশের বাজারেও ভোজ্যতেলের দাম বেড়েছে। তবে টিসিবির মাধ্যমে ভর্তুকি মূল্যে তেল বিক্রি অব্যাহত থাকবে। রমজানে নিত্যপণ্যের দাম সহনীয় থাকবে বলে ব্যবসায়ীরা আমাকে কথা দিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্বর বক্তব্যে বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চা বোর্ডের প্রথম বাঙালি চেয়ারম্যান হিসেবে ১৯৫৭ সালের ৪ জুন থেকে ১৯৫৮ সালের ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। চা শিল্পে বঙ্গবন্ধুর অবদান অবিস্মরণীয় করে রাখতে মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের অন্যতম প্রধান কার্যক্রম হিসেবে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি গ্যালারি ও বঙ্গবন্ধু কর্নার করা হয়েছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন, যুগ্ম সচিব আব্দুর রহিম খান, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমানসহ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

আরও খবর