চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানার বালুছড়া এলাকায় কাশেম ভবনের নিচতলায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে মো. ফারুক (২৩) নামের একজন নিহত ও দুজন দগ্ধ হয়েছেন। ফারুক চট্টগ্রাম কলেজ পূর্ব গেইট এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে। আহতরা হলেন, ফোরকান উল্লাহ (৬০) ও আবুল কালাম (৩০)।

রোববার (১৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে দশটার দিকে বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে। চমেক সূত্রে জানা গেছে, কালামের শরীরের ৬০ শতাংশ পুড়ে গেছে। কালাম ও ফোরকান বায়েজিদের কাশেম কলোনির বাসিন্দা। ফোরকানের গ্রামের বাড়ি চাপাইনবাবগঞ্জ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বায়েজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান বলেন, বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ হওয়া তিনজনকে আমরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠিয়েছি। কর্তব্যরত চিকিৎসক ফারুককে মৃত ঘোষণা করেন। অপর দুইজন ফোরকান ও কালাম চমেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছেন।

চিকিৎসকদের বরাতে ওসি জামান বলেন, কাশেমের শরীরর ৬০ শতাংশ জ্বলসে গেছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে গ্যাস বিষ্ফোরণ এই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে।

বায়েজিদ ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র অফিসার কবির হোসেন বলেন, বায়েজিদ বোস্তামী থানার বালুছড়া এলাকায় কাশেম ভবনের নিচতলায় একটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি কীভাবে ঘটেছে তা জানার চেষ্টা করছি। পুলিশ ও আমরা ঘটনাস্থলে আছি। এখনও বিস্ফোরণের কারণ উদঘাটন করা যায়নি। বিস্ফোরণ থেকে ছোট একটা আগুন হয়েছিল তা নির্বাপন হয়ে গেছে।

আরও খবর