চান্দগাঁও থানার হামিদচর এলাকা থেকে উদ্ধার হওয়া বাচ্চা ডলফিনটি জেলেদের জালে আটকা পড়ে শ্বাস বন্ধ হয়েই মারা গিয়েছিল বলে ময়নাতদন্তে ওঠে এলো। জালে আটকা পড়ার পর জেলেদের কেউ সেই ডলফিনটির গায়ে আঘাতও করেছিল। উদ্ধারের সময় আঘাতের চিহ্ন দেখা না গেলেও ময়নাতদন্তে ওঠে আসে সেই আঘাতে বিষয়টি।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে গাঙ্গেয় ডলফিনের ময়নাতদন্ত পরিচালনা করে। এটি চট্টগ্রামে কোন ডলফিনের দ্বিতীয় ময়নাতদন্ত। এর আগে চবি হালদা রিসার্চ ল্যাবরেটরিতে ২০১৮ সালে আরেকটি ডলফিনের ময়না তদন্ত হয়েছিল।

এতে অংশ নেন হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরীর কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক ড. মো. মনজুরুল কিবরীয়া, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্যাথলজি এন্ড প্যারাসাইটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. জুনায়েদ সিদ্দিকী এবং অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান; সিভাসু ভেটেরিনারি হসপিটালের পরিচালক অধ্যাপক ড. ভজন চন্দ্র দাস; একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এনাটমি এন্ড হিস্টোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সুব্রত কুমার এবং ফিশারিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো: মহিউদ্দিন জাহাঙ্গির।

উল্লেখ্য, গত ১ আগস্ট ২০২১ তারিখে, চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থানার হামিদ চর এলাকার কর্ণফুলী নদী থেকে ডলফিনটি উদ্বার করা হয়েছিলো। শুশুক বা গাঙ্গেয় ডলফিন বিপন্ন প্রজাতিভুক্ত প্রাণী যাদের সংখ্যা ক্রমশ কমে আসছে। এ গুরুত্বপূর্ণ বুদ্ধিমান প্রাণীটি নদীর স্বাস্থ্য উপলব্ধির বায়োলজিক্যাল প্যারামিটার। গবেষকদের মতে, বর্তমান পৃথিবীতে এ উপপ্রজাতির আর মাত্র ১২০০-১৮০০ টি সদস্য অবশিষ্ট রয়েছে।

কর্ণফুলী থেকে উদ্ধার হওয়া ডলফিনটির প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট করেছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যার অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরীয়া, চট্টগ্রাম বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের রেঞ্জার মো. ইসমাইল হোসেন এবং বন বিভাগের কর্মী অজয় দেব।

জানতে চাইলে অধ্যাপক ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া বলেন, ময়না তদন্তে প্রাথমিকভাবে ডলফিনটি জাল আটকা পড়ে শ্বাস বন্ধ হয়ে যায় এবং পরবর্তীতে পিঠে আঘাতের কারণে ডলফিনটির মৃত্যু হয়েছে বলে আমরা একমত হয়েছি। এছাড়াও পানির দূষণ বা বিষক্রিয়াজনিত কারণ, খাদ্য বিষক্রিয়া, রোগ বা জীবাণু সংক্রমণে মৃত্যু কিনা তা পরীক্ষা নিরীক্ষার পর বিস্তারিত জানা যাবে।

আরও খবর