শিক্ষা উপমন্ত্রী ও সাংসদ ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, বৃক্ষরাজী ধ্বংস হয়, পরিবেশ ধ্বংস হয়, এমন কিছু এই সরকার করবে না। জনগণের দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার পরিবেশের ব্যাপারে অত্যন্ত সংবেদনশীল।

বুধবার (১৪ জুলাই) সন্ধ্যায় নওফেল তার ফেসবুক আইডিতে দেওয়া এক স্ট্যাটাতে আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সময় সবুজায়ন এবং বনায়ন বৃদ্ধি পেয়েছে সবচেয়ে বেশি।’

চট্টগ্রাম নগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সিআরবি এলাকায় ইউনাইটেড হাসপাতালের জন্য প্রস্তাবিত জায়গা পরিদর্শনের যান, এজন্য তিনি তাদেরকে ধন্যবাদ জানান।

স্ট্যাটাসে মন্ত্রী উল্লেখ করেন, ‘কোন জায়গায় হাসপাতাল হবে সেটি পরিদর্শন করে দেখেছেন। সিআরবি শিরীষতলা এলাকা, উন্মুক্ত এলাকা ও সাতরাস্তার মোড়ের শতবর্ষী গাছের জায়গা আর বর্তমানে যেখানে হাসপাতাল আছে সেটি ও তার পেছনে নতুন হাসপাতালের জন্য নির্ধারিত জায়গাটি থেকে দূরত্ব এবং পার্থক্য আছে কিনা।’

মন্ত্রী আরও লিখেন, বৃক্ষরাজী ধ্বংস হয়, পরিবেশ ধ্বংস হয়, এমন কিছু এই সরকার করবে না!

সম্প্রতি রেলওয়ের ছয় একর জায়গায় বেসরকারি হাসপাতাল তৈরির সাইনবোর্ড স্থাপন হলে চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক থেকে শুরু করে সর্বস্তরের মানুষে মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। এই পরিস্থিতিতে বুধবার সকালে মহানগর ও দুই জেলা ইউনিট আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সার্কিট হাউজে বৈঠকে বসেন। তারা রেলমন্ত্রীর সাথে ফোনে কথা বলতে ব্যর্থ হয়ে হাসপাতালের প্রকল্প পরিচালককে নিয়ে স্থান পরিদর্শনে যান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন চৌধুরী, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালাম, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাংসদ মোসলেম উদ্দিন আহমদ, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান ও উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান।

চট্টগ্রাম বার্তা

আরও খবর