চট্টগ্রামের করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছে। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু। একই সাথে ঊর্ধ্বগতিতে ছুটছে করোনা শনাক্ত। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ জনের মৃত্যু নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় প্রাণহানি ছাড়াল হাজারের মাইলফলক। একই সময়ে চট্টগ্রামে গত ২০ দিনের মধ্যে ষষ্ঠবারের মতো শনাক্ত ছড়ালো হাজারের ওপর।

এই নিয়ে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত গিয়ে দাঁড়ালো ৮৬ হাজার ৪২৯ জনের। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ২৮৫ জন। অন্যদিকে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হল ১০১০ জনের। এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের— যাদের ৬ জন চট্টগ্রাম নগরের এবং বাকি ১০ জনই উপজেলার।

বুধবার (৪ আগস্ট) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের রিপোর্টে বলা হয়েছে, নগরীর নয়টি ল্যাব ও এন্টিজেন টেস্টে গত ২৪ ঘন্টায় ৩ হাজার ৬৭৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নতুন করে ১ হাজার ২৮৫ জন করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন।

নতুন শনাক্তদের মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরে রয়েছে ৮৪৪ জন এবং ১৪ উপজেলায় ৪৪১ জন। উপজেলায় আক্রান্তদের মধ্যে হাটহাজারীতে সর্বোচ্চ ৮০ জন, রাউজানে ৫৪ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ৫৩ জন, সীতাকুণ্ডে ৫১ জন, বোয়ালখালীতে ৪২ জন, পটিয়ায় ৩০ জন, বাঁশখালীতে ২০ জন, লোহাগাড়ায় ২০ জন, সন্দ্বীপে ১৮ জন, ফটিকছড়িতে ১৫ জন, মিরসরাইয়ে ১৪ জন, সাতকানিয়ায় ১০ জন, আনোয়ারায় ৮ জন এবং চন্দনাইশে ২ জন।

চট্টগ্রাম জেলায় করোনাভাইরাসে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা এখন ৮৬ হাজার ৪২৯ জন। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের বাসিন্দা ৬৪ হাজার ৪৫৯ জন এবং ১৪ উপজেলার ২১ হাজার ৯৭০ জন।

গত ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম মহানগরে আরও ৬ জনের মৃত্যু হল। এদিন উপজেলায় মারা গেলেন ১০ জন। সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০১০ জনে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের ৫৯৭ জন ও উপজেলার ৪১৩ জন।

ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস ল্যাবে (বিআইটিআইডি) ৮৫৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ২৩০ ও উপজেলার ৫৩ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৪৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ১২৭ জন ও উপজেলার ২৭ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৩১৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় চট্টগ্রাম নগরের ৭১ ও উপজেলার ৭০ জন জীবাণুবাহক পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হলে নগরের ১৫ জন ও উপজেলার ১১৪ জনের শরীরে জীবাণুর উপস্থিতি চিহ্নিত হয়।

অন্যদিকে ৭৮৭টি এন্টিজেন টেস্টে মহানগরের ৮০ জন ও উপজেলার ১৪৭ জন মিলিয়ে মোট ২২৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ১৯টি নমুনার মধ্যে উপজেলার ২টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ এসেছে।

এদিকে বেসরকারি ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির মধ্যে আগ্রাবাদের মা ও শিশু হাসপাতালে ৫২টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৩০ ও উপজেলার ৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। বেসরকারি শেভরন ল্যাবে ৫০৬টি নমুনার মধ্যে উপজেলার ৮টিসহ ১৩১টি নমুনার ফলাফল পজিটিভ আসে।

এছাড়া বেসরকারি মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ৩৯টি নমুনায় চট্টগ্রাম উপজেলার একজনসহ নগরের ১৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। ইপিক হেলথ কেয়ারে ১৮৭টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৯২ ও উপজেলার ৭ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। ইমপেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১৯৭টি নমুনায় চট্টগ্রাম নগরের ৫২ জন ও উপজেলার ৭ জনের শরীরে করোনা চিহ্নিত হয়েছে।

আরও খবর