চট্টগ্রামের মুরাদপুর মোড়ে নালায় পড়ে তলিয়ে যাওয়া ব্যবসায়ীর সন্ধান ৭২ ঘণ্টায়ও মেলেনি। নিখোঁজের দিন থেকে পালা করে তল্লাশি অভিযান অব্যহত রেখেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরির দল। যা অব্যাহত আছে চতুর্থ দিনেও। এদিন মুরাদপুর থেকে শুরু হয়ে পুরো নালার বিভিন্ন স্পটে তল্লাশি অভিযান চলবে বলে জানিয়েছে চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস।

শনিবার (২৮ আগস্ট) সকাল ১১ টায় চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ইন্সপেক্টর ফরুখ উদ্দিন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘আজ (শনিবার) সকাল ৮ টা থেকে ৪র্থ দিনের মতো ফায়ার সার্ভিসের তল্লাশি অভিযান শুরু হয়েছে। আজকে নালার বিভিন্ন স্পটে অভিযান চালানো হচ্ছে। সাধারণত ২৪ ঘন্টা পরে পানিতে ডুবে যাওয়া কারও লাশ ভেসে ওঠে। তবে এখন পর্যন্ত নিখোঁজ ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এর কারণ হতে পারে পানির স্রোতে অনেক দূরে ভেসে গেছেন অথবা নালায় ময়লার ভিতরের কোথাও দেহটি আটকে আছে। আমরা ঘটনার প্রথমেই যে স্পটগুলো নির্ধারণ করেছিলাম গতকাল পর্যন্ত সেখানে কিছু পাইনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজকে আমরা নালাটির শেষ প্রান্ত পর্যন্ত অভিযান চালাব। কর্ণফুলী নদীর যেখান থেকে নালাটি শুরু হয়েছে সেখানেও আমাদের অভিযান চলবে। আর কর্ণফুলী নদীতেও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। তবে সেখান থেকেও এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে কোন তথ্য আসেনি। নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের এ তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

এর আগে গত বুধবার নগরের মুরাদপুর এলাকায় জলাবদ্ধতার তীব্র স্রোতে পা পিছলে নালায় পড়ে নিখোঁজ হন মো. সালেহ আহমদ নামে ৫০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি। তিনি চকবাজার এলাকায় সবজি ব্যবসা করতেন। তার বাড়ি পটিয়া উপজেলার মনসার টেক এলাকায়।

আরও খবর